হেঁটে বেড়ায় যে গাছ!!!

Must read

ইকুয়েডরের রাজধানী কুইটো থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণ – পূর্বের বন সুমাকো বায়োস্ফিয়ার রিজার্ভ। ইউনেস্কো ঘোষিত সংরক্ষিত এ বনটিকে বলা হয় ” হার্ট অব দ্য ইউনেস্কো “। এখানেই এক অদ্ভুত গাছের সন্ধান পেয়েছেন স্লোভাক। ইনস্টিটিউব অব সায়েন্সের ব্রাতিস্লাভার জীবাশ্ম বিদ পিটার ভ্র‍্যানস্কি। এক দিন প্রায় ৩ ঘন্টা গাড়িতে আর ১৫ ঘন্টা নৌকায় চড়ে, পায়ে হেঁটে ও থচ্চরের গাড়িতে করে জঙ্গলের গভীরে প্রবেশ করে এগুলোর দেখা পান তিনি। এগুলো এক ধরনের পাম গাছ। এই বনের গাছগুলো, জে আর আর টলকিনের মহাকাব্য ” লউ অব দ্য রিংস স্যাগা’য় বর্ণিত গাছের মতো সারা বন হেঁটে বেড়ায় । বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান শুরু করেন পিটার। শুরুতেই তিনি পান, অনাবিষ্কৃত ৩০ মিটারের একটি জলপ্রপাত, নতুন একটি টিকটিকি ও ব্যাঙের প্রজাতি। পিটার জানান, মাটি ক্ষয় হয়ে যাওয়ার কারণে গাছগুলোর শিকড় থেকে জন্ম নেয় নতুন নতুন শেকড়। নতুন শেকড়গুলো মাটির প্রায় ২০ মিটার পর্যন্ত ছড়িয়ে পরে এবং সেগুলো থেকে জন্ম নেয় নতুন গাছ। তিনি বলেন, ঠিকমতো সূর্যের আলো এবং উর্বর মাটি থাকলে একটি গাছ জন্ম নিতে সময় লাগে প্রায় দুই বছর। পিটার আরও জানান, দুই মাসের এ বিপজ্জনক অভিযানে তিনি প্রায় ১৫০ প্রজাতির নতুন জীবের সন্ধান পান। তবে এ জন্য তাকে ১০ কেজি ওজন হারাতে হয়েছে।

- Advertisement -spot_img

More articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

Latest article