বৈদ্যুতিক গাড়ির জগতে জনপ্রিয় নাম টেসলা। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির কারণে মার্কিন এ প্রতিষ্ঠানটির তৈরি গাড়ির চাহিদা বাড়ছে দিনদিন। নিরাপত্তার বিষয়টি জোরদার করতে টেসলার গাড়িগুলোতে সংযুক্ত করা হয়েছে বেশ কয়েকটি মাল্টি ডিরেকশন ক্যামেরা। গাড়ির বাহিরে থাকা এ ক্যামেরাগুলো পার্কিং, অটোপাইলট, ও সেভ ডাইভিং এর মতো কাজে সহায়তা করে। চালকের সুবিধার্থে রিয়ারভিউ আয়নাতেও ক্যামেরা লাগানো থাকে। আর এসব ক্যামেরায় কাল হলো প্রতিষ্ঠানটির জন্য। নিরাপত্তা ঝুঁকির অভিযোগে নিজ দেশের সামরিক এলাকায় টেসলা গাড়ি নিষিদ্ধ করেছে চীন। যেখানে বলা হয় টেসলা গাড়িগুলোর মাল্টি ডিরেকশন ক্যামেরা ও উল্ট্রাসনিক সেনসর গুলো অবস্থান প্রকাশ করতে পারে। এ জন্য গোপনীয় সামরিক তথ্য সুরক্ষা করতে যানবাহন গুলোকে সামরিক এলাকা থেকে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। এমন ঘোষণায় উদ্বেগ তৈরি হয়েছে টেসলা গাড়ি ব্যবহারকারীদের মাঝে। যদিও চীনের এ আভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে টেসলা। নিষিদ্ধ ঘোষণা প্রতিক্রিয়ায় প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক বলেন, যে কোন তথ্য গোপন করার বিষয়ে তার প্রতিষ্ঠান খুবই আন্তরিক। টেলসা যদি চীন কিংবা অন্য কোথাও গুপ্তচর ভিত্তির জন্য গাড়িটি ব্যবহার করে তবে তিনি এ প্রতিষ্ঠানই বন্ধ করে দিবেন। টেলসার প্রতি চীনের এ আচরণ অবশ্য চীন মার্কিন প্রযুক্তি যুদ্ধের আরেক রুপ হিসাবে বিবেচনা করছে বিশ্লেষকরা। তাদের মতে নিরাপত্তার অজুহাতে চীনা টেলকম জেন্ড হুয়াওয়ে নেটওয়ার্ক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা দেন যুক্তরাষ্ট্র। যার জবাব দিতে শুরু করেছে চীন। ২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে কারখানা তৈরির ক্ষেত্রে চীনের বড় ধরনের সমথর্ন পায় টেসলা। যার প্রেক্ষিতে দুই মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করে এ প্রতিষ্ঠানটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here