ব্যাট দিয়ে বল মেরে এনামুলকে আউট করলেন তামিম

বিপিএল

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ১৮.৫ ওভারে মাত্র ১২৪ রানে অল আউট হয়েছে রাজশাহী কিংস। বোলারদের তোপের মুখে বড় সংগ্রহ গড়তে পারনি রাজশাহী কিংস।

টপ অর্ডারে মেহেদী হাসান মিরাজ, লোয়ার মিডেল অর্ডারে জাকির হাসান ও লোয়ার অর্ডারে উদানার ৩২ ছাড়া আর কেউ দাঁড়াতে পারেননি। সহজ লক্ষ্য অতিক্রম করতে ব্যাটিংয়ে নেমেছে কুমিল্লা।

ফিফটির কাছে থাকা বিজয়কে ফেরালেন উদানা: দুর্ভগ্য বসত আউট হয়ে ফিরলেন বিজয় তার রান ৩২ বলে ৪০ রান।

বিপদজনক লুইসকে ফিরিয়েছেন কাইসঃ-

অষ্টম ওভারের প্রথম বলেই বিপদজনক এভিন লুইসকে ফিরিয়েছেন কাইস আহমদ। ২১ বলে তিনটি চার ও একটি ছক্কায় ২৮ রান করে মমিনুল হককে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন কায়েস।

আক্রমণাত্মক মনোভাবে বিজয়-লুইসঃ-

অল্প রান তাড়া করতে নেমে সতর্ক শুরু করেছেন দুই ওপেনার এনামুল হক বিজয় এবং এভিন লুইস। প্রথম তিন ওভার দেখেশুনে খেললেও চতুর্থ ওভারে হাত খুলে খেলছেন তাঁরা। সব মিলিয়ে পাওয়ার প্লে’তে কুমিল্লার সংগ্রহ ৫১ রান।

প্রথম ইনিংসের বিবরণঃ-

এই ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভিক্টোরিয়ান্স দলপতি দলপতি ইমরুল কায়েস। ফলে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামেন রাজশাহীর দুই ওপেনার মমিনুল হক ও মেহেদী হাসান মিরাজ। এই দুজনে ওপেনিং জুটিতে যোগ করেন ২০ রান।

মমিনুল ৩ রান করে সাইফুদ্দিনের বলে লেগ বিফোরের শিকার হয়েছেন। এরপর রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরিয়েছেন সৌম্যকে। নিয়মিত উইকেট গেলেও পাওয়ার প্লেতে উইকেট বাঁচিয়ে খেলে গেছে মেহেদী হাসান মিরাজ।

পাওয়ার প্লের ৬ ওভার শেষে রাজশাহীর সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেট হারিয়ে ৪৬ রান। হাফিজ ১৬ রান করে ডসনের বলে বোল্ড আউট হয়েছেন। আর দারুণ খেলতে থাকা মিরাজকে ব্যক্তিগত ৩০ রানে লেগ বোফোরের ফাঁদে ফেলেছেন শহীদ আফ্রিদী।

এর পরের বলেই একই কায়দায় রানের খাতা খোলার আগে আউট করেছেন আফ্রিদি। ফজলে মাহমুদ রাব্বি মাত্র ৩ রান করে জাকির হাসানের সাথে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হয়ে ফিরেছেন।

কাইস আহমেদ প্রথম বলেই আফ্রিদিকে ডাউন দ্যা উইকেটে খেলতে এসে স্টাম্পিংয়ের শিকার হয়েছেন। অষ্টম উইকেটে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন জাকির ও উদানা। এই দুজনে দেখে শুনে খেলে যোগ করেন ৩০ রান।

এই দুজনের জুটি ভাঙেছেন লিয়াম ডসন। তিনি ২৭ রান করা জাকিরকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে আউট করেছেন। এরপর উদানা ও আরাফাত সানি মিলে দলীয় সংগ্রহ শতক ছাড়ান। সানি অবশ্য বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি।

তিনি ৪ রান করে আবু হায়দারের শিকার হয়েছেন। উদানা ৩২ রান করে আবু হায়দারের বলে এক্সট্রা কভারে আফ্রিদির হাতে ক্যাচ দিলে দলটি অল আউট হয় ১২৪ রানে।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস একাদশঃ

তামিম ইকবাল, ইভিন লুইস, ইমরুল কায়েস (অধিনায়ক), শোয়েব মালিক, এনামুল হক (উইকেটরক্ষক), শহীদ আফ্রিদি, লিয়াম ডসন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, মেহেদী হাসান, আবু হায়দার রনি, মোহাম্মদ শহীদ।

রাজশাহী কিংস একাদশঃ

মোহাম্মদ হাফিজ, মমিনুল হক, মেহদি হাসান (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, লরি ইভান্স, জাকির হাসান (উইকেটরক্ষক), ফজলে মাহমুদ, ইসুরু উদানা, কাইস আহমদ, আরাফাত সানি, মুস্তাফিজুর রহমান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সঃ ৮৯/২ (১২ ওভার)(ইমরুল ১*, তামিম ১১*)

রাজশাহী কিংসঃ ১২৪/১০ (১৮.৫ ওভার)(উদানা ৩২, মিরাজ ৩০, জাকির ২৭; আফ্রিদি ৩/১০)