স্মিথের চেয়ে ‘বিগ বস’ গেইল এগিয়ে

ক্রিকেট

আজ বিপিএলে কোনো খেলা ছিল না। বেশির ভাগ দলই করেছে ঐচ্ছিক অনুশীলন। কোনো কোনো দল দিনটা কাটিয়ে দিয়েছে হোটেলেই। মিরপুর একাডেমি মাঠে দলের প্রতিনিধি হয়ে তরুণ খেলোয়াড়েরা কথা বলেছেন, জানিয়েছেন বড় তারকা সম্পর্কে তাঁদের ভাবনা

বড় বড় তারকার সমাবেশ হয়েছে এই বিপিএলে। স্টিভেন স্মিথ এসেছেন। ডেভিড ওয়ার্নার, ক্রিস গেইলও এসেছেন। চলে আসবেন এবি ডি ভিলিয়ার্সও। স্মিথ-ওয়ার্নার এরই মধ্যে মাঠের লড়াই শুরু করেছেন। কাল আরেকটা লড়াই দেখা যাবে, কুমিল্লা-রংপুরের মোড়কে স্মিথ বনাম গেইল। অনাপত্তিপত্র (এনওসি) জটিলতায় জ্যামাইকান ওপেনার কাল খুলনার বিপক্ষে খেলতে পারেননি। গেইলের এনওসি চলে এসেছে, কালই নামছেন কুমিল্লার বিপক্ষে। তারকার লড়াইয়ে এই ম্যাচে কে এগিয়ে থাকবেন, গেইল না স্মিথ?

রংপুরের তরুণ ওপেনার মেহেদী মারুফ এগিয়ে রাখছেন তাঁর সতীর্থ গেইলকেই, ‘গেইল বাংলাদেশে অনেক বছর ধরে খেলে। এটা আমাদের জন্য সবচেয়ে বড় সুবিধা। স্মিথের বোধ হয় এটা প্রথম বিপিএল। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ (২০১৭ সালে) ছাড়া সম্প্রতি খেলতে আসেনি সে। গেইল বাড়তি সুবিধা পাবে এ কারণেই। এখানকার বোলারদের সবাইকে ও জানে। আমি বিগ বসকে (গেইল) এগিয়ে রাখব।’

খুলনার বিপক্ষে জিতে ফুরফুরে মেজাজে থাকা রংপুর কাল কুমিল্লাকেও হারাতে চায়। মারুফ বললেন, ‘কুমিল্লার শক্তি-দুর্বলতা নিয়ে পরিকল্পনা করব। সব শেষ ম্যাচ জেতায় সবাই ফুরফুরে মেজাজে আছি। আমাদের সবার আত্মবিশ্বাস ভালো। ব্যাটিং-বোলিং দুইটাতেই ভালো হয়েছে। এখন আমাদের কুমিল্লার শক্তি-দুর্বলতা নিয়ে দেখছি। আমরা একটা একটা ম্যাচ নিয়ে এগোচ্ছি।’

প্রতিপক্ষ অধিনায়ক স্মিথকে স্বাভাবিকভাবে এগিয়ে রাখতে চাইবেন না রংপুরের মারুফ। তবে কুমিল্লার মেহেদী হাসানের কাছে কিন্তু ঠিকই এগিয়ে তাঁর অধিনায়ক, ‘স্মিথ অধিনায়ক হিসেবে, মানুষ হিসেবে সব দিক থেকেই ভালো। আমার ওর সবকিছুই ভালো লেগেছে। ম্যাচে নিজেকে এবং সবাইকে ব্যস্ত রাখে সে, যেটা টি-টোয়েন্টিতে ক্রিকেটে অনেক জরুরি। সবাইকে সে খেলায় মনোযোগী রাখে। আসলে তাঁর জন্য এক দিনেই সবার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়। সময় লাগবে। খেলতে খেলতে সে আমাদের উন্নতিতে আরও সাহায্য করতে পারবে। সবার সঙ্গে সে অনেক মিশতে পারে।’

বিপিএলের শুরুটা ভালো হয়নি ওয়ার্নারের। প্রথম ম্যাচেই হেরেছে তাঁর দল সিলেট সিক্সার্স। তবে এক ম্যাচ দিয়েই ওয়ার্নারের অধিনায়কত্ব বিচার করতে রাজি নন দলের পাকিস্তানি তারকা সোহেল তানভীর, ‘মাত্র একটি ম্যাচ হয়েছে। আপনি একজন অধিনায়ককে এক ম্যাচ দিয়ে বিচার করতে পারেন না। সে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। অন্য অনেক ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে সে অধিনায়কত্ব করেছে। আমি তাঁকে কানাডায় দেখেছি, সেখানেও ভালো করেছে। আশা করি এখানেও ভালো করবে।’

ওয়ার্নারের মতো রাজশাহী কিংসের অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজেরও শুরু হয়েছে হার দিয়ে। তবে তাঁর সতীর্থ আরাফাত সানি আশাবাদী তরুণ এ অধিনায়ককে নিয়ে, ‘মিরাজ বিপিএলে প্রথম অধিনায়কত্ব করছে। কিন্তু সে নেতৃত্ব দিতে অভ্যস্ত। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক ছিল, ওই টুর্নামেন্টে সেরা ক্রিকেটারও হয়েছে আমাদের। এটা ওর জন্য একটু বাড়তি দায়িত্ব বলা যায়। সে যা করতে চায় আমরা ওকে সহায়তা করছি।’