দেখুন উত্তেজনাপূর্ণ এই ম্যাচে,ম্যাচ সেরা হলেন যে ক্রিকেটার

বিপিএল

‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) তৃতীয় ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় দিয়েই আসর শুরু করেছে স্টিভ স্মিথেরর দল, অন্যদিকে ওয়ার্নারের নেতৃত্বাধীন সিলেট হেরেছে নিজেদের আসর শুরুর ম্যাচেই।

টস জিতে এদিন সিলেট সিক্সার্সের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। লিটন দাসকে নিয়ে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নেমে শুরুতেই সঙ্গীকে হারান ওয়ার্নার। এরপর তৌহিদ হৃদয়ের ভুলে নিজেই ফেরেন সাজঘরে। দলীয় রান ৬০ পেরোবার আগেই একে একে সাজঘরে ফেরেন ৬ জন ব্যাটসম্যান। এতে দল পড়ে যায় চাপে।

তবে চাপ সামাল দেন নিকোলাস পুরান। ক্যারিবীয় এই ব্যাটসম্যানের উপর ভর করে দল পায় সম্মানজনক সংগ্রহ। ৫টি চার ও ২টি ছক্কার সহায়তায় ২৬ বলে ৪১ রান করেন পুরান। এছাড়া অলক কাপালি ও আফিফ হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ১৯ রান। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে সিলেট সিক্সার্সের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১২৭ রান, ৮ উইকেট হারিয়ে।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পক্ষে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোহাম্মদ শহীদ ও মেহেদী হাসান দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

দুই অজি অধিনায়কের লড়াইয়ে জিতলেন স্মিথই

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভালো শুরু করতে পারেনি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সও। ইনিংসের শুরুতেই দলটি হারায় ওপেনার এভিন লুইস ও ওয়ান ডাউনে নামা ইমরুল কায়েসকে। তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে দেখেশুনে খেলতে থাকেন দলের আইকন ক্রিকেটার ও ওপেনার তামিম ইকবাল।

তামিমকে কিছুক্ষণ সঙ্গ দিয়ে অধিনায়ক স্মিথ সাজঘরে ফেরেন ব্যক্তিগত ১৬ রানের (১৭ বল) মাথায়। তার কিছুক্ষণ পর আউট হয়ে যান শোয়েব মালিক ও এনামুল হক বিজয়ও। স্পেশালিষ্ট ব্যাটসম্যানদের হারিয়ে দলের যখন রান প্রয়োজন ভীষণ, তখন ৩৪ বলে ৩৫ রান করা তামিমও ধরেন সাজঘরের পথ। তবে তাতেও দলের বিপদ ঘটতে দেননি পাকিস্তানের মারকুটে ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি। তার বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে দলটি জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ১ বল ও ৪ উইকেট বাকি থাকতেই। ৩৯ রানে (২৫ বল) অপরাজিত থাকা আফ্রিদিকে অন্যপ্রান্তে সঙ্গ দেন ৫ রানে অপরাজিত শহীদ।

সিলেট সিক্সার্সের পক্ষে আল-আমিন হোসেন ও সন্দ্বীপ লামিচানে দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরটস: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

সিলেট সিক্সার্স: ১২৭/৮ (২০ ওভার)পুরান ৪১, আফিফ ১৯, অলক ১৯সাইফউদ্দিন ১৩/২, শহীদ ২২/২, মেহেদী ২৪/২

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স: ১৩০/৬ (১৯.৫ ওভার) আফ্রিদি ৩৯ , তামিম ৩৫লামিচানে ১৬/২, আল-আমিন ২০/২

ফল: কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৪ উইকেটে জয়ী।

আর এই ম্যাচে বল হাতে ৪ ওভার বল করে ১ ওভার মেডেন ও ১ উইকেট নিয়ে দিয়েছেন মাত্র ২৯ রান। আর এরপর ব্যাট হাতে ৫টি চার ও ২টি ছক্কা হাকিয়ে করেছেন ২৫ বলে ৩৯ রান । আর সেই সাথে আজকের এই ম্যাচে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হলেন শহীদ আফ্রিদি