টানা ৩ বার পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় মমতা

রাজনীতি

চলতি বছরের লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস এগিয়ে আছে ২৩ আসনে, বিজেপি ১৮ আসনে এবং কংগ্রেস ১ আসন। এ নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো ওই রাজ্যে জয়ী হলো মমতার দল তৃণমূল কংগ্রেস।

এর আগের দুটি নির্বাচনেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস পশ্চিমবঙ্গে সরকার গঠন করেছে। ২০১১ সালে কয়েক দশকের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে ক্ষমতায় আসেন তৃণমূল নেত্রী মমতা। এছাড়া ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনের মধ্যে মমতার দল পায় ৩৪টি আসন। ওই নির্বাচনে কংগ্রেস পেয়েছিল চারটি আসন আর বামফ্রন্ট এবং বিজেপি পায় দুটি করে আসন।

এবারের নির্বাচনী প্রচারণায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, তার দল পশ্চিমবঙ্গে ৪২য়ে ৪২ পাবে। অর্থাৎ ৪২ আসনের সবগুলোই তৃণমূল কংগ্রেসের ঘরে যাওয়ার কথা থাকলেও বিজেপি তা হতে দেয়নি। সেখানে সামান্য কিছু ব্যবধান রয়েছে তৃণমূল আর বিজেপির মধ্যে। বিজেপি আর অল্প কিছু আসনে এগিয়ে থাকলেই মমতার পায়ের নিচের ভীত নড়বড়ে হয়ে যেত।২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে এই রাজ্যে মাত্র ২টি আসনে জিতেছিল বিজেপি। তখন থেকেই এ রাজ্যে জোরদার প্রচারণা চালিয়ে আসছে তারা। গত দু’বছরে, রাজ্য সরকারের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে বিজেপি। কিন্তু তারপরেও সেখানে শক্ত অবস্থান তৈরি করে উত্থানের ইঙ্গিত দিল মোদির দল।

ভোটের আগে পশ্চিমবঙ্গে বেশি করে সভা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। তার ফল হাতেনাতেই পেয়েছে বিজেপি। সেখানে অল্প ভোটের ব্যবধানে পিছিয়ে আছে মোদির দল। তবে তৃণমূল কংগ্রেসকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেললেও টলাতে পারেনি বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গে নিজেদের অবস্থান ধরে রেখেছে মমতার তৃণমূল কংগ্রেস।

এবার পশ্চিমবঙ্গে ভোটে নতুন মুখ হিসেবে চমক দিয়েছেন দুই তারকা প্রার্থী নুসরাত জাহান এবং মিমি চক্রবর্তী। প্রাথমিক ফলাফল অনুযায়ী, ভোটে এগিয়ে আছেন তৃণমূলের তিন তারকা প্রার্থী দেব ওরফে দীপিক অধিকারি, মিমি চক্রবর্তী ও নুসরাত জাহান।