পশ্চিমবঙ্গে তারকাদের চূড়ান্ত ভাগ্য পরীক্ষা কাল

রাজনীতি

ভারতের লোকসভার ৫৪৩ আসনের সপ্তম বা শেষ দফার নির্বাচন হবে কাল রোববার। শেষ দফায় আট রাজ্যের ৫৯টি আসনে ভোট হবে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নয়টি আসন রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে কাল নির্বাচনে ভাগ্য পরীক্ষার মুখোমুখি হচ্ছেন বেশ কয়েকজন তারকা প্রার্থী। পশ্চিমবঙ্গ ছাড়া অন্য সাত রাজ্য হলো বিহার (৮ আসন), ঝাড়খন্ড (৩ আসন), মধ্যপ্রদেশ (৮ আসন), পাঞ্জাব (১৩ আসন), চণ্ডীগড় (১ আসন), উত্তর প্রদেশ (১৩ আসন) ও হিমাচল প্রদেশ (৪ আসন)।

পশ্চিমবঙ্গে ৪২ আসনের লোকসভায় এর আগে ছয় দফায় ৩৩টি আসনে ভোট নেওয়া হয়েছে। এবার তিনটি জেলার নয়টি আসনের মধ্যে রয়েছে কলকাতা উত্তর, কলকাতা দক্ষিণ, দমদম, যাদবপুর, বারাসাত, বসিরহাট, ডায়মন্ড হারবার, জয়নগর ও মথুরাপুর। ১২ মে ষষ্ঠ দফার নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের আটটি আসনে কমবেশি সন্ত্রাসের ঘটনা ঘটায় এবার নিরাপত্তাব্যবস্থা বেশি নেওয়া হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য বাড়ানো হয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। নির্বাচন কমিশন থেকে বলা হয়েছে, কাল নির্বাচনে রাজ্যের নয়টি আসনের জন্য নিয়োগ করা হয়েছে ৭১০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী। আসনগুলোয় রাজ্যের প্রধান চারটি দল বা জোট তৃণমূল, বিজেপি, বামফ্রন্ট, কংগ্রেসসহ আরও কয়েকটি ছোট দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা অংশ নিচ্ছেন। সব মিলিয়ে প্রার্থীসংখ্যা ১১১।

চলচ্চিত্রের দুই তারকা মিমি চক্রবর্তী ও নুসরাত জাহানের ভাগ্য পরীক্ষা কাল। আরও রয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা ও সাবেক রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা, কলকাতা পৌর করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্য, প্রবীণ রাজনীতিবিদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌগত রায়, নেতাজির ভ্রাতুষ্পুত্র চন্দ্র কুমার বোস, যুব তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি ও মুখ্যমন্ত্রী মমতার ভাইয়ের ছেলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, চিকিৎসক ফুয়াদ হালিম ও কাকলি ঘোষ দস্তিদার। কলকাতার যাদবপুর আসনের উল্লেখযোগ্য প্রার্থীরা হলেন তৃণমূলের মিমি চক্রবর্তী, বিজেপির অনুপম হাজরা এবং বামফ্রন্টের বিকাশ ভট্টাচার্য।

বসিরহাট আসনে তৃণমূলের নুসরাত জাহান, বিজেপির সায়ন্তন বসু, বামফ্রন্টের পল্লব সেনগুপ্ত এবং কংগ্রেসের কাজী আবদুর রহিম।
বারাসাত আসনে তৃণমূলের কাকলি ঘোষ দস্তিদার, বিজেপির মৃণাল কান্তি দেবনাথ, বামফ্রন্টের হরিপদ বিশ্বাস এবং কংগ্রেসের সুব্রতা দত্ত।
দমদম আসনে তৃণমূলের সৌগত রায়, বিজেপির শমীক ভট্টাচার্য, বামফ্রন্টের নেপাল দেব ভট্টাচার্য এবং কংগ্রেসের সৌরভ সাহা। জয়নগরে তৃণমূলের প্রতিমা মণ্ডল, বিজেপির অশোক কান্ডারি, বামফ্রন্টের সুভাষ নস্কর এবং কংগ্রেসের তপন মণ্ডল।

মথুরাপুরে তৃণমূলের চৌধুরী মোহন জাটুয়া, বিজেপির শ্যামা প্রসাদ হালদার, বামফ্রন্টের শরৎ হালদার এবং কংগ্রেসের কৃত্তিবাস সর্দার।
ডায়মন্ড হারবারে তৃণমূলের অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, বিজেপির নিরঞ্জন রায়, বামফ্রন্টের ফুয়াদ হালিম এবং কংগ্রেসের সৌম্য আইচ রায়।
কলকাতা উত্তর আসনে তৃণমূলের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিজেপির রাহুল সিনহা এবং বামফ্রন্টের কনীনিকা ঘোষ। কলকাতা দক্ষিণ আসনে তৃণমূলের মালা রায়, বিজেপির চন্দ্র কুমার বোস, বামফ্রন্টের নন্দিনী মুখার্জি এবং কংগ্রেসের মিতা চক্রবর্তী।