২০ দলের বৈঠকে যে সকল সিদ্ধান্ত

রাজনীতি

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী জোটনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে ২০ দলীয় জোট একক ও পৃথক পৃথক কর্মসূচি দিবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান। সেমবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলের বৈঠক শেষে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও জানান, বৈঠকে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।
সে গুলো হলো, ২০ দলীয় জোট প্রতি মাসের ৮ তারিখ বৈঠক করবে।

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী জোটনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে ২০ দলীয় জোট একক ও পৃথক পৃথক কর্মসূচি দিবে।কৃষক ন্যায্যমূল্যে পাচ্ছে না। তাই কৃষকের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্যের দাবি এবং কৃষি পণ্যের দাম কমানোর দাবি করা হয়েছে বৈঠক থেকে।মিড নাইট নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচনের দাবিতে বৃহত্তর ঐক্য গঠনের লক্ষ্যে ২০ দলের বাহিরের রাজনৈতিক দল গুলোকে একত্র করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।
বিজেপির চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ ২০ দল থেকে চলে গেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান বলেন, আন্দালিব রহমান পার্থ আমাদের সাথে শুরু থেকেই ছিল। আশা করি মান অভিমান ভুলে আবার ২০ দলীয় জোটে ফিরে আসবে। লেবারপার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ২০ দল ছাড়ার আল্টিমেটাম দিয়েছেন, তিনি ২০ দলে থাকবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান বলেন, মোস্তাফিজুর রহমান ইরান আজকেও বৈঠকে ছিলেন। তিনি ২০ দলীয় জোট ছাড়াও আল্টিমেটামের কথা অস্বীকার করেছেন।

২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে মতো বিরোধ চলছে এমন প্রশ্ন করা হলে ২০ দলের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পূর্বে ২০ দলীয় জোটের মতামত নেওয়া হয়েছে। তারা সকলে জাতীয় ঐক্যগঠনের পক্ষে বলেছেন এবং সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। তাই ঐক্যফ্রন্ট গঠনে কোন বাধা নেই। এ সময় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য বলেন, আপনারা যখন ২০ দল বা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সর্ম্পকে নিউজ করেন তখন আমাদের সাথে কথা বলে করলে ভাল হয়। তাহলে সঠিক নিউজ করতে পারবেন। এবং জনগণও বিভ্রান্ত হবেন না। অন্যথায় ভুলভাল নিউজ প্রকাশ হতে পারে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জাতীয় পার্টির মোস্তফা জামাল হায়দার, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব আহমেদ আব্দুল কাদের, ইসলামী ঐক্যজোটের অ্যাডভোকেট আব্দুর রাকিব, পিপলস পার্টির সৈয়দ মাহবুব হোসেন প্রমুখ।

সূত্রঃ বিডি২৪লাইভ।