আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে হামলা-ভাংচুর

জেলা সংবাদ রাজনীতি

আসন্ন নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে জেলা শহর মাইজদীতে ফুটপাতের দোকানপাট ও যানবাহনে হামলা-ভাংচুর চালানো হয়। রবিবার বিকেলে জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ইমন ভট্টর সমর্থকরা এ ঘটনা ঘটায়। এতে অন্তত ৫ জন আহত হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এমপির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নের সিদ্ধান্তের বিষয়ে বৈঠক হয়। বৈঠকে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামতের ভিত্তিতে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন এবং জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক একেএম সামছুদ্দিন জেহানের নাম কেন্দ্রে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়। এতে দলীয় ভাবে জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ইমন ভট্টের নাম না রাখায় তার সমর্থকরা এ সময় বিক্ষুদ্ধ হয়ে শহরের প্রধান সড়কের কমপক্ষে ৩০-৪০টি দোকানপাট ও বিভিন্ন যানবাহনে ভাংচুর চালায়।

সুধারাম মডেল থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে। তবে এতে কেউ আহত হয়েছে বলে জানা নেই। উল্লেখ্য, আগামী ১৮জুন নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক।