পাকিস্তানে বিমান হামলা নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য বিজেপি এমপি’র

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরে বিমানহামলায় তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। কার্যত একথা স্বীকার করে নিলেন বিজেপির সংসদ সদস্য তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুরেন্দ্র সিং আহলুওয়ালিয়া। শনিবার এক সাংবাদ সম্মেলনে তিনি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ক্ষয়ক্ষতির খতিয়ানের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেন।

তার দাবি, পাকিস্তানে ঢুকে বোমা ফেলে ভারত বুঝিয়ে দিয়েছে ইচ্ছা করলে যে কোনও সময় ক্ষয়ক্ষতি করতেও পারি আমরা।

এদিন আহলুওয়ালিয়া বলেন, বিমানহামলার পর চুরুতে প্রথম জনসভা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে তিনি কি মৃতের সংখ্যা নিয়ে কিছু বলেছেন? বিজেপির কোনও মুখপাত্র মৃতের সংখ্যা নিয়ে কিছু বলেছেন? অমিত শাহ কিছু বলেছেন?

আহলুওয়ালিয়ার দাবি, ক্ষয়ক্ষতি হয়নি তার কারণ, তোমার বাড়ির পাশে বোমা ফেলে বুঝিয়ে দেওয়া হল ইচ্ছা করলে তোমার বাড়িতেও ফেলতে পারি। এটাই দরকার ছিল। পাকিস্তানের সমস্ত সুরক্ষাবলয় টপকে বোমা ফেলে আমরা বুঝিয়ে দিয়েছি আমরা এটা করতে পারি। নিরীহ মানুষের প্রাণ নেওয়া আমাদের লক্ষ্য ছিল না।

উল্লেখ্য, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরে বিমানহানা চালায় ভারত। ভারতীয় বায়ুসেনার ১২টি মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমান ৩টি লক্ষ্যে বোমা ফেলে। ভারতীয় কতৃপক্ষের দাবী, তাতে শতাধিক উগ্রবাদীর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের স্পষ্ট তথ্য পেশ করা উচিত বলে মন্তব্য করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।