সবচেয়ে কম বয়সী মনোনয়ন প্রত্যাশী জেমস

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সবচেয়ে কম বয়সী সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহমুদুল হক জেমস। ছোট বেলা থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালন করে একজন সংসদ সদস্য হওয়ার স্বপ্ন দেখেন তিনি। আর সে স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কলেজ জীবন থেকেই তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে পদার্পণ করেন। মাত্র ২৬ বছর বয়সেই আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে লড়াই করতে মাঠে নেমেছেন এই তরুণ নেতা।

ইতোমধ্যে তিনি প্রচার-প্রচারণা, পথসভা, ব্যানার-ফেস্টুন লাগানো শুরু করেছেন। অল্প বয়সে মনোনয়ন প্রত্যাশা ব্যক্ত করে চমক সৃষ্টি করা সাবেক এই ছাত্রলীগ নেতা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের ৫ম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ।

মাহমুদুল হক জেমস বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে নিয়ে শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশসহ ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে নিজে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী হয়ে কাজ করার জন্য এবার মনোনয়ন চাইছি। ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে দলকে ভালবেসে সব সময় নেতা-কর্মীদের পাশেই ছিলাম। বরাবরের মত জনগণের পাশে থাকতে চাই। আমার বিশ্বাস দেশরত্ন শেখ হাসিনা সৎ, শিক্ষিত, তরুণ ও ত্যাগীদের মূল্যায়ন করবেন। তবে আমি মনোনয়ন না পেলেও দল থেকে যাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে, তার পক্ষেই কাজ করব।

ঢাকা-৭ (কোতয়ালী, বংশাল, চকবাজার, লালবাগ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে প্রচারণা শুরু করে আলোচনায় এসেছেন তরুণ মুখ মাহমুদুল হক জেমস। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মাহমুদুল হক জেমসের ব্যাপারে ভোটারদের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে। পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও তার পাশেই আছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও জেমসকে নিয়ে বেশ আলোচনা হচ্ছে। আলোচনায় তার বয়স নিয়েই বেশি কথা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে জেমস বলেন, আমাদের দেশেই জুনাইদ আহমেদ পলক তারুণ্যের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। এমনকি জাতির পিতা শেখ মুজিব যুক্তফ্রন্ট সরকারের সর্ব কনিষ্ঠ মন্ত্রী ছিলেন। ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় দেখিয়ে দিয়েছেন, বয়স কোনো ব্যাপার না। উনারা আমার অনুপ্রেরণা।

জেমস আরও বলেন, জনগণের দোয়া ও শেখ হাসিনার সমর্থনে যদি আশানুরুপ সাড়া পাই কথা দিচ্ছি, জনগণকে আমাকে খুঁজতে হবে না। আমিই জনগণের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে যাবো। ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকার রাস্তা ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংস্কার, দিনের বেলা ট্রাক ও ঠেলা গাড়ি বন্ধ করে যানজট নিরসন, বেড়িবাঁধ থেকে অবৈধ উচ্ছেদ ও ট্রাক স্ট্যান্ড সরিয়ে পুরান ঢাকার মূল সড়কের উপড় চাপ কমানোর জন্য নিরলস চেষ্টা করে যাবো।

উল্লেখ, এর আগে ৮ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর ২ আসন থেকে মাত্র ২৬ বছর বয়সে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন জাহিদ আহসান রাসেল।