ইতিহাসে মাইলফলক: ওবায়দুল কাদের

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে অনুষ্ঠিত হওয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংলাপকে ঐতিহাসিক এবং ইতিহাসে মাইলফলক বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, সরকারের প্রধান স্বয়ং এমন সংলাপ করেছেন এমন নজির নেই। এই সংলাপ ইতিবাচক বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বুধবার (৭ নভেম্বর) রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ২৪টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ শেষে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। এদিন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের সঙ্গে জাতীয় গণতান্ত্রিক জোটসহ (এনডিএ) ২৪টি রাজনৈতিক দলের সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৪ দলের ২৩ জন এবং ২৪টি রাজনৈতিক দলের ৭২ জন নেতা সংলাপে উপস্থিত ছিলেন।

কাদের বলেন,  ১৫ ও ২১ আগস্টের কুশীলবদের সাথে আলোচনা করতে চাইনি বলে দলের অনেকেই সংলাপের বিরুদ্ধে ছিলাম। নেত্রী (শেখ হাসিনা) চেয়েছেন বলেই আমরা সার্বিক সহযোগীতা করেছি। ৭০টিরও বেশি জোট ও দল এই সংলাপে অংশ নেয় বলে জানান তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে যে উত্তাপ চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছিল সংলাপের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সে উত্তাপে পানি ঢেলে দিয়েছেন। সংলাপ করে তিনি তার বিশাল মনের পরিচয় দিয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সব দল ও জোট নির্বাচনে অংশ নেবে বলে আশা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর অংশগ্রহণে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে এক্সক্লুসিভ নির্বাচন। ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে আসবে না, এটা তিনি বিশ্বাস করেন না বলেও মন্তব্য করেন কাদের।

এসময় সংলাপের ফলাফল জানাতে প্রধানমন্ত্রীর বৃহস্পতিবারের সংবাদ সম্মেলন স্থগিতের কারণ নিয়েও কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে বলেই সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

২৪ দলের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে তিনি বলেন, বেশির ভাগ দলই স্থিতাবস্থা চেয়েছে। সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন করার পক্ষে মত দিয়েছেন তারা। সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশন ও সরকারকে সমর্থন করার কথাও জানিয়েছে তারা।