বিএনপির ৮ নেতার জামিন বিষয়ে শুনানি পেছাল

উসকানিমূলক বক্তব্য এবং পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় দায়ের হওয়া মামলায় বিএনপির শীর্ষ আট নেতাকে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষে আপিল আবেদনের শুনানি দুই সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছেন সুপ্রিকোর্টের আপিল বিভাগ।রোববার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের সাত সদস্যের বেঞ্চ শুনানি পিছিয়ে এই আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানির জন্য উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। অন্যদিকে বিএনপি নেতাদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, জয়নুল আবেদীন, মাহবুব উদ্দিন খোকন, মো. মাসুদ রানা, এ কে এম এহসানুর রহমান প্রমুখ।

এর আগে গত ২৫ অক্টোবর শুনানিতে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালতকে জানান, আমরা হাইকোর্টের আদেশের কপি হাতে পেয়েছি। এখন এ বিষয়ে নিয়মিত আপিল করতে চাই। তাই আবেদনটি আজ শুনানির জন্য নট টু ডে (আজ নয়) আদেশ দিন। এরপর আদালত নট টু ডে আদেশ দেন।

হাতিরঝিল থানায় বিএনপির অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধাদান ও নাশকতার অভিযোগে গত ১ অক্টোবর মামলা করে পুলিশ। পরে সে মামলায় হাইকোর্ট থেকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পান বিএনপির সাত নেতা। মামলাটির পুলিশ প্রতিবেদন না দেয়া পর্যন্ত তাদের এ জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

জামিনপ্রাপ্ত নেতারা হলেন- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমানউল্লাহ আমান ও এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলটির প্রায় সব সিনিয়র নেতাসহ ৫৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ।